রেডমি নোট ৮ বাংলা টাকায় দাম কত?


1
1 point

রেডমি নোট ৮ বাংলা টাকায় দাম কত?

আজকে আলোচনা করব রেডমি নোট 8 নিয়ে। বাজারে এই মোবাইলটি এখন প্রচুর পরিমাণে বিক্রি হচ্ছে। কারন এটির দাম মাত্র ১৫ হাজার টাকা। আর ১৫ হাজার টাকা দামের এই ফোনটি প্রচুর বিক্রি হওয়ার অনেক কারণও রয়েছে।

উল্লেখযোগ্য কারনগুলি হচ্ছে :

এর সা্ইনী লুক এবং সামনে পিছনে কর্নিং গরিল্লা গ্লাস ৫ এর প্রোডাকশন সেই সাথে গ্লাস বডির ফোন এটি। কোয়ার্ট ক্যামেরা সেটআপ সেই সাথে রয়েছে 4000mh এর বিগ ব্যাটারি। এসব নানা কারণে কিন্তু প্রচুর পরিমাণে বিক্রি হচ্ছে। কিন্তু বিক্রি হওয়ার পর আমি বিভিন্ন গ্রুপে দেখতে পাচ্ছি যে,  প্রচুর অভিযোগ রয়েছে আবার অনেকে এই ফোনটি খুব দ্রুতই বিক্রি করে দিতে চাচ্ছেন।

আবার অনেকের পরামর্শ  দিচ্ছে অন্য কোন ফোনের বিষয়ে। তো কি সমস্যা রয়েছে এই ফোনটা তে? আপনি যদি ফোনটি কিনতে চান তাহলে আমি আপনাকে বলবো যে, অবশ্যই আমার লেখাটি দেখুন তারপর সিদ্ধান্ত নিবেন এই ফোনটা ক্রয় করা কেন ঠিক হবে-কি হবে না।

ফোনের দাম=১৫,০০০/- হাজার টাকা মাত্র

আমার মতামত :

রেডমি নোট এ যে জিনিসটা সবচেয়ে বাজে লেগেছে তা হচ্ছে এর ক্যামেরা। দিনের আলোয় সুন্দর সুন্দর ছবি তুলতে পারে, আর কম আলোয় খুবই বাজে ছবি হয়। কম আলোয় কোন ডিটেইলস থাকে না সারপনেস থাকে না, তাছাড়া হচ্ছে কালার প্রোডাকশনও ভালো থাকেনা।

রেডমি নোট ৮ এ ব্যবহার করা হয়েছে স্যামসাং এর জি-২ সেন্সর। আমরা জানি স্যামসাং সেন্সর গুলো সাধারনত অপেক্ষাকৃত দুর্বল হয়ে থাকে। যেখানে কালার ডিটেলস এবং সারপনেস এসব জিনিসের ঘাটতি আমরা লক্ষ করে থাকি।

আমি যদি ক্যামেরা কথা বলি তাহলে, এই প্রাইস এর আশেপাশে থাকা অন্য ফোনগুলোর সাথে কম্পেয়ার করি তাহলে বলতে পারি যে, রেডমি নোট 7 প্রো এই ফোনটা তে ব্যবহার করা হয়েছে ছনির সেন্সর। যেখানে কালার প্রোডাকশন এর ডিটেলস সবকিছু অনেক বেশি ডেভেলপ। তাছাড়া যদি আমি আরো একটি ফোনের কথা বলী শাওমী মিএ৩ । এই ফোনটা ও কিন্তু খুব ভালো ছবি ক্যাপ্চার করতে পারে। যেটা তুলনায় এটা অনেক বেশি অনেক বেশি দুর্বল।তাই আমি বলবো যে, ক্যামেরার দিক থেকে এই ফোনটা অনেক বেশি পিছিয়ে আছে।

redmi note 8 price in bangladesh

পাবজি গেম খেলতে পারব কি?

এখানে বলতে হবে যে, মিডিয়াম গ্রাফিক্স একটু বড় ধরনের সমস্যা। যদি আমি অন্য ফোনের সাথে কম্পেয়ার করতে যাই তাহলে, আমি বলতে পারি রেডমি নোট ৭ প্রো এবং ভিভো u20 এই দুইটা ফোনে কথা। এই ২ টা ফোনও কিন্তু ১৫০০০ টাকার আসে পাশে বিক্রি হচ্ছে। তো এই দুইটা ফোনে দেওয়া হয়েছে স্নাপড্রাগণ ৬৭৫ প্রসেসর যদি অপেক্ষাকৃত এটার চেয়ে অনেক বেশি ফাস্ট। তাই যে কোন প্রকার গেম প্লে করতে পারবেন। তাছাড়া হচ্ছে মাল্টিটাস্কিং গেমিং, সব কিছু  করে চালাতে পারবেন তো এদিক থেকে আমি বলি যে রেডমি নোট ৮ অনেকটা পিছিয়ে আছে পারফরমেন্সের দিক থেকে।

একটা জিনিস নোটিশ করেছিস যে, চার্জের সময় অথবা গেম খেললে দীর্ঘ সময় কথা বললে এই ফোনটা কিন্তু প্রচুর পরিমাণে হিট হয়। হিট হওয়ার পিছনে একটা কারন রয়েছে। সেটা হচ্ছে গ্লাস বডি।

 


Like it? Share with your friends!

1
1 point
admin

0 Comments

Your email address will not be published. Required fields are marked *